আওয়ামী লীগ নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন?

পবিত্র ঈদুল ফিতর সমাগত। চাঁদ দেখা গেলে সোমবার অথবা মঙ্গলবার উদযাপিত হবে ঈদ। এরই মধ্যে ঈদের প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে সরকারসহ সংশ্লিষ্ট সব মহল। জাতীয় ঈদগাহে ৩৫ হাজার মুসল্লি নিয়ে সকাল সাড়ে ৮টায় ঈদ জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে। জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমে সকাল ৭টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত ঈদের ৫টি জামায়াত অনুষ্ঠিত হবে। কে কোথায় ঈদ করবেন, ঈদের নামাজ পড়বেন, সেটিসহ সামগ্রিক প্রস্তুতি নিয়ে ফেলেছেন সবাই। সাধারণ জনগণসহ নেতাকর্মীদের মধ্যেও কৌতূহল থাকে রাজনৈতিক নেতাদের কে কোথায় ঈদ করবেন। ক্ষমতাসীনদল আওয়ামী লীগের নেতারা কে কোথায় ঈদ করবেন, তা তুলে ধরা হচ্ছে পাঠকদের জন্য।

আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যথারীতি গণভবনে ঈদ উদযাপন করবেন। আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমদ নিজের নির্বাচনী এলাকায় অবস্থান করছেন। তিনি এক সপ্তাহ থাকবেন সেখানে। ঈদ করে ঢাকায় ফিরবেন তিনি।

দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের ঢাকায় ঈদ করবেন। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য কাজী জাফর উল্যাহও ঈদ করবেন ঢাকায়। এরই মধ্যে এলাকায় গিয়ে নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষের সঙ্গে ঈদ উপলক্ষে সাক্ষাৎ করে এসেছেন। সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাকও ঈদ করবেন ঢাকায়। তিনি ঈদ উপলক্ষে নির্বাচনী এলাকা ঘুরে এসেছেন, শুভেচ্ছা বিনিময় করতে ঈদের পরদিনও যাবেন এলাকায়।

সভাপতিমণ্ডলীর আরেক সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক ঈদ করবেন ঢাকায়। সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান তার নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করবেন। তিনি এখন নিজ এলাকায় অবস্থান করছেন।

দলটির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফও তার নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করবেন। এরই মধ্যে তিনি এলাকায় চলে গেছেন। আরেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ঈদ করবেন ঢাকায়। তিনি বলেন, আমার নেতাকর্মীরা যেন পরিবার-আত্মীয়স্বজনের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করতে পারে সেজন্য সবসময়ই আমি প্রথম ও দ্বিতীয় দিন ঢাকায় ঈদ উদযাপন করি। তৃতীয় দিন এলাকায় সবার সঙ্গে ঈদ উদযাপন করি।

যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম এরই মধ্যে নিজ এলাকায় চলে গেছেন। সেখানে ঈদ করবেন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ তার নির্বাচনী এলাকায় ঈদ করবেন।

সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন যাচ্ছেন এলাকায়, ঈদ করবেন সেখানে। বিএম মোজাম্মেল হক ঈদ করবেন ঢাকায়। সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল ঈদ করবেন তার গ্রামের বাড়ি মৌলভীবাজারের কুলাউড়ায়।

আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল ও তার পত্নী যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক অপু উকিল ঈদে নির্বাচনী এলাকায় থাকবেন। এরই মধ্যে চলে গেছেন। ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী ঈদের সকালে ঢাকায়, বিকেলে চাঁদপুরে নিজ এলাকায় থাকবেন।

দলটির তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক ড. সেলিম মাহমুদ ঈদ করবেন ঢাকায়। তবে তিনি জানিয়েছেন, ২৯ এপ্রিল ও ৩০ এপ্রিল তিনি নির্বাচনী এলাকায় (কচুয়া, চাঁদপুর) ঈদ উপহার হিসেবে সাড়ে সাত হাজার শাড়ি বিতরণ করেছেন। ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করতে পরদিন এলাকায় যাবেন।

আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া এবং উপ-দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান ঈদ করবেন ঢাকায়। আর উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন ঈদ করবেন নিজ এলাকা চট্টগ্রামের সাতকানিয়ায়।

Leave a Reply