গরু চোর শাকিলের অন্যায়ের প্রতিবাদ করায় অপপ্রচার চালাচ্ছে: বাকীন ভূইয়া

লক্ষ্মীপুরের রায়পুর উপজেলার মিরগঞ্জ বাজারে দিনে ছাত্রলীগ, রাতে গরু চোর খ্যাত শাকিল নামে একজন রায়পুর উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি প্রার্থী সাঈদুল বাকীন ভূইয়ার বিরুদ্ধে অন্যায়ের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করায় অপপ্রচার ও কূৎসা রটোনোর অভিযোগ করেন বাকীন ভূইয়া। ঘটনা সূত্রে জানা যায়, গত রবিবার গরু চুরি করে ২০২০ সালে জনতার হাতে আটক হয়েছিলেন ছাত্রলীগ কর্মী শাকিল। স্থানীয়দের মতে তিনি দিনে ছাত্রলীগ করলেও রাতে পশু চিকিৎসক সেজে গরু চুরি নিত্যনৈমিত্তিক বিষয় ছিলো।
গরু চুরির মামলার সাক্ষীদের আদালতে হাজিরা দিতে বাধাগ্রস্থ ও ভয়ভীতি দেখাতো। মিরগঞ্জ বাজারে শাকিলের বিরুদ্ধে অভিযোগ শুনে রবিবার রাতে শাকিলকে ডেকে এনে বাজারে জানতে চাইলে সে উত্তেজিত হয় বলে জানায় সাঈদুল বাকীন ভূইয়া।পথিমধ্যে রাস্তায় এসে অশ্লীল গালাগাল করে শাকিল ও তার বাবা। জীবননাশের হুমকি দেওয়ারও অভিযোগ করেন বাকীন ভূইয়া।

এলাকার সূত্রে জানা যায়, রমজানের ঈদ থেকে গরুর ডাক্তার পরিচয় দিয়ে সে বিভিন্ন এলাকার মানুষের গরু দিনে দেখে এসে রাতে চুরি করতো। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, আটককৃত চোরকে স্থানীয় ইউপি সদস্যের জিম্মাদারি দিয়ে গত ৭ সেপ্টেম্বর একটি শালিসের তারিখ দেন। আটককৃত চোর ৩ টি গরু চুরি করেছে বলে স্বীকার করেন, তবে ৭ থেকে ৮ জন ভুক্তভোগী তাদের গরু চুরি হয়েছে বলে জানান, এই বিষয়ে সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান এমরান হোসেন নান্নু বলেন বিষয় টা শুনেছি একাধিকবার বসেছিলাম।

রায়পুর থানা ও সদর থানা সূত্রে জানা যায়, লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর হামছাদী ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ড এর চবিলপুর গ্রামের আনোয়ার হোসেনের ছেলে মো: শাকিল লক্ষ্মীপুরের বশিকপুর ইউনিয়নের নাগের হাট বাজারে চুরিকৃত গরু বিক্রির টাকা নিতে গেলে হাতে নাতে আটক করে এলাকাবাসী, গরুর মালিক রায়পুরের কেরোয়া ইউনিয়ন এর বড় বাড়ির সজিবের। তার গরু চুরি হওয়ার পর তাকে সজিব সন্দেহ করে, পরে নাগের হাট বাজারে গরু চুরির টাকা আনতে গেলে স্থানীয় পরিচিত একজন খবর দেয় পরে তাকে হাতে নাতে আটক করে মিরগঞ্জ বাজারে নিয়ে আসা হয়।আরেক গরুর মালিক গাইনে জাকির ও থানায় অভিযোগ দিয়েছিলেন, তারা জানিয়েছিলো বেশ কিছুদিন যাবত গরুর ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ভিন্ন সাধারণ মানুষের কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নিতেন এবং দিনে আমার গরু চিকিৎসার নাম দিয়ে দেখে আসে সেই দিন রাতেই গরু চুরি হয়৷

অভিযুক্ত শাকিল সাংবাদিকদের বলেন, পাশ্ববর্তী কেরোয়া গ্রামের ভুইয়া বাড়ীর সাইদুল বাকীন ভুঁইয়া সাথে দীর্ঘদিন থেকে আমি পশু চিকিৎসক শাকিলের কাছে উন্নয়ন কাজের কথা বলে টাকা দাবি করে আসছে। এরই প্রেক্ষিতে রবিবার রাত দশটায় বাকীন তার অনুসারীদের নিয়ে তার বাড়িতে হামলা করে। এসময় চিকিৎকার চেচামেচিতে লোকজন জড়ো হয়। পরে খবর পেয়ে লক্ষ্মীপুর মডেল থানার পুলিশ ও রায়পুর থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় সন্ত্রাসীরা আমাদের বাড়ীর দরজা জানালা ও আসবাবপত্র ভাংচুর করে। গোয়াল ঘরে থাকা গরুকে মারপিট করায় গরু অসুস্থ হয়ে পড়ে এবং পেটে থাকা বাচুর বেরিয়ে যায়।এসময় হামলাকারীরা ঘরে থাকা নগদ টাকা ও স্বর্ণালংকার নিয়ে যায়। সোমবার হামলার শিকার পশু চিকিৎসক শাকিল ও তার পরিবার বিচার চেয়ে লক্ষ্মীপুর পুলিশ সুপার অফিসে লিখিত অভিযোগও করেন বলে জানান।

অভিযোগের বিষয়ে সাইদুল বাকীন ভূইয়া বলেন, এসব শাকিল ও তার পরিবার নিজেই করে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার করছে। এই এলাকায় তার গরু চুরির অন্যায় করার কারনে সে আমাকে ফাঁসাতে এগুলো করেছে।

ডব্লিউজি/এমএ

Leave a Reply