ফিল্ডিং নিয়ে সিরিয়াসলি বসতে হবে : তামিম

টাইগার ক্রিকেটের সঙ্গে ক্যাচ মিস যেন সমার্থক হয়ে দাঁড়িয়েছে। বাংলাদেশ বোলিং বা ব্যাটিংয়ে উন্নতি করতে সম্ভব হলেও ফিল্ডিংয়ে তথৈবচ। বোলিং-ব্যাটিং ভালো করা সত্ত্বেও কেবল ফিল্ডিংয়ের জন্য কত গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ হেরেছে টাইগার, সে হিসেবে গেলে দর্শক হিসেবে হতাশা ছাড়া কিছুই মিলবে না।

জাতীয় দলের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালও তাই দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজের আগে সংবাদ মাধ্যমে বলেছেন, ফিল্ডিং নিয়ে সিরিয়াসলি বসতে হবে তাদের। এই অধিনায়ক কোনো রাখঢাক না করেই জানিয়েছেন, ফিল্ডিং নিয়ে উদ্বিগ্ন তারা। টাইগারদের এই উদ্বিগ্নতা লম্বা সময় ধরে। গত চার বছরের হিসেবে গেলে দেখা যায়, বাংলাদেশ ২০১৮ থেকে ২০২১ সাল পর্যন্ত ১৩৪টি ক্যাচ মিস করেছে। মোট ক্যাচের ২০ শতাংশ মিস করে টাইগাররা। এর মধ্যে ২০১৮, ২০২০ এবং ২০২১ সালে ২০ শতাংশ এর বেশি হারে ক্যাচ মিস করেছে টাইগাররা।

ক্যাচ মিসের মাশুল হিসেবে গত বছর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে গুরুত্বপূর্ণ খেলায়ও হার দেখতে হয় তাদের। সে টুর্নামেন্টে ৬ ম্যাচে ৯ ক্যাচ মিস করে দল। এর আগে নিউজিল্যান্ড সফরে ৬ ম্যাচে করে ১২ ক্যাচ মিস। এর জন্য আগের ফিল্ডিং কোচ রায়ান কুককেও বাদ দেয় দল।

দল নতুন নিয়োগ দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার শেন ম্যাকডারমটকে। যিনি দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ থেকে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন।

নতুন কোচের অধীনে গল্প বদলাবে কী? সেই উত্তর সময় দেবে। তবে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ৫ ম্যাচে ৯ ক্যাচ মিস করে উদ্বিগ্ন তামিম বুধবার (৯ মার্চ) গণমাধ্যমকে বলেন, ‘ফিল্ডিং নিয়ে অবশ্যই আমি উদ্বিগ্ন। এখানে উন্নতি করতেই হবে, লুকানোর কিছু নেই। যেকোনো সংস্করণে ভালো করতে হলেই ফিল্ডিংয়ে ভালো করতে হবে আমাদের। এটা নিয়ে আমরা অনেক কথা বলছি। কিন্তু সবশেষ ৩-৪ বছর যদি দেখেন বা সিরিজগুলো, ফিল্ডিং আমাদের সমস্যায় ফেলছে। আমাদের এটা নিয়ে সিরিয়াসলি বসতে হবে এবং একটা পথ বের করতে হবে যে কীভাবে উন্নতি করতে পারি।’

ক্যাচ মিসের সমস্যা হিসেবে তামিম কোচদের কোনো দোষ দেখছেন না। বরং নিজেদের আরও উন্নতির কথা বলছেন জাতীয় দলের এই ওয়ানডে অধিনায়ক।

তামিম আরও যোগ করেন, ‘অনুশীলনে যদি বলেন বা কোচদের কথা, তারা তাদের দায়িত্ব ভালোভাবে পালন করছেন। এই সিরিজে রাজিন ভাই (রাজিন সালেহ) ফিল্ডিং কোচ ছিলেন, তিনি দারুণ কাজ করেছেন। কিন্তু আমাদের ভুল যে আমরা মিস করেছি। আমাদের তাই উন্নতির পথ বের করতে হবে। যত দ্রুত এখান থেকে বের হতে পারি, আমাদের জন্য তত ভালো।’

ডব্লিউজি/এমএ

Leave a Reply